× প্রচ্ছদ বাংলাদেশ বিশ্ব রাজনীতি খেলা বিনোদন বাণিজ্য লাইফ স্টাইল ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

পুঁজিবাজারে আড়াই বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮:৪৬ পিএম

সূচকের পতনের সঙ্গে দেশের শেয়ারবাজারে লেনদেনও নেমেছে ২০০ কোটি টাকার নিচে। 

সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) হাতবদল হয় ১৯৮ কোটি ৮০ লাখ ৭৩ হাজার টাকা, যা  গত ২ বছর ৫ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। 

এর আগে সপ্তাহের শেষ কর্মদিবস বৃহস্পতিবার লেনদেন হয়েছিল ২২৭ কোটি ৭৪ লাখ ৭৮ হাজার টাকার শেয়ার। সেটি ছিল ২০২০ সালের ১৬ জুলাইয়ের পর সর্বনিম্ন লেনদেন।

সোমবার ৬৩টি কোম্পানির একটি শেয়ারও লেনদেন হয়নি। এর মধ্যে লভ্যাংশ সংক্রান্ত রেকর্ড ডেটের কারণে লেনদেন বন্ধ ছিল দুটির। আগের কর্মদিবসে রেকর্ড ডেটের বাইরে কোনও শেয়ার লেনদেন হয়নি ৮১টি কোম্পানির।

করোনাভাইরাসের কারণে ২০২১ সালের ৫ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় বিধিনিষেধ বা লকডাউন দেওয়ার ঘোষণায় বাজারে যে আতঙ্ক ছিল, এখনকার পরিস্থিতি তার চেয়েও খারাপ। এই বিধিনিষেধে লেনদেন বন্ধ হয়ে যাবে, এমন শঙ্কায় ৪ এপ্রিল হাতবদল হয় ২৩৬ কোটি ৬০ লাখ ৭৪ হাজার টাকা, তবে লেনদেন চলবে— এমন ঘোষণার পরের দিন থেকে ঘুরে দাঁড়ায় পুঁজিবাজার।

বিশ্লেষকরা বলছেন, তলানিতে নামলেও গত দুই বছরে লেনদেন ২০০ কোটির নিচে নামেনি, কিন্তু সোমবার হাতবদল হয় ১৯৮ কোটি ৮০ লাখ ৭৩ হাজার টাকা। এর চেয়ে কম লেনদেন হয়েছিল ২০২০ সালের ৭ জুলাই। ওই দিন হাতবদল হয়েছিল ১৩৮ কোটি ৫৬ লাখ ৫৫ হাজার টাকা।

পাঁচ কর্মদিবস পর বৃহস্পতিবার সূচক বেড়েছিল ৩ পয়েন্ট। এক কর্মদিবস পরই ফের কমলো ১২ পয়েন্ট। এর মধ্য দিয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক ডিএসইএক্স অবস্থান করে ৬ হাজার ১৮৯ পয়েন্টে।

অর্থাৎ দরবৃদ্ধির তুলনায় দরপতন হয় পাঁচ গুণের বেশি। ২৫টি কোম্পানির দরবৃদ্ধির বিপরীতে দরপতন হয় ১৩৭টির। ফ্লোর প্রাইসে বা আগের দিনের দরে হাতবদল হয় ১৬৭টির, যা বৃহস্পতিবার ছিল ১৫২টি। ফ্লোর প্রাইসে গত কয়েক মাসে সেটিই ছিল সবচেয়ে কম।

বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার শঙ্কার মধ্যে গত জুলাইয়ে পুঁজিবাজারে ক্রমাগত দরপতনের মধ্যে ডিএসইর সাধারণ সূচক ডিএসইএক্স ছয় হাজার পয়েন্টের নিচে নেমে যায়। এরপর ৩১ জুলাই দ্বিতীয় দফায় ফ্লোর প্রাইস বেঁধে দেওয়া হয়।

করোনার সময় ফ্লোর প্রাইস পুঁজিবাজারের জন্য ইতিবাচক হলেও এবারের চিত্রটি অন্যরকম। শুরুর দুই মাস বাজারে লেনদেন ও সূচক বাড়লেও তা ভারসাম্যপূর্ণ ছিল না। সর্বোচ্চ ৭০ থেকে ৮০টি কোম্পানির দর বাড়লেও বেশিরভাগ কোম্পানির লেনদেনে ইতিবাচক প্রভাব পড়েনি।

Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com, বিজ্ঞাপন: 01894-944204

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2023 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.