× প্রচ্ছদ জাতীয় সারাদেশ রাজনীতি বিশ্ব খেলা আজকের বিশেষ বাণিজ্য বিনোদন ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

সাটু‌রিয়ায় সরকারি অনুদানের পুনর্বাসনের টাকা থে‌কে টাকা রে‌খে দিলো ইউ‌পি সদস‌্য

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

৩০ জুলাই ২০২২, ১৪:২১ পিএম

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপ‌জেলায় নদী ভাঙন কবলিতদের নামে সরকারি অনুদানের পুনর্বাসনের বরাদ্দ হওয়া টাকা পাওয়ার পর তা থে‌কে অর্থ রে‌খে আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে বরাইদ ইউনিয়নের এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। 

অভিযুক্ত ব‌্যক্তি বরাইদ এর মাকারকুল এলাকার মৃত সইমুদ্দিনের ছেলে ও বরাইদ ইউনিয়নের দুই নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবুল হোসেন। বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় পর এলাকায়  ব‌্যাপক সমা‌লোচনার জন্ম হয়েছে। 
ইউ‌পি সদস‌্য সরকারি অনুদানের পুনর্বাসনের বরাদ্দ হওয়া থে‌কে টাকা নেওয়ার এ বিষয়‌টি প্রকা‌শের পর বাড়ি বাড়ি গিয়ে সুবিধাভোগীদের বিষয়টি অস্বীকার করার জন্য চাপ দিচ্ছে। এ ঘটনায় একজন নারী ওই ইউপি সদস্যের মানসিক চাপে বাড়ি থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে ব‌লেও অ‌ভি‌যোগ পাওয়া গে‌ছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের আওতায় প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে উপজেলার ৩টি ইউনিয়নের ২২টি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মধ্যে ১১ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। সম্প্রতি প্রত্যেকটি পরিবারের জন্য ৫০ হাজার টাকার চেক দেওয়া হয়। 

আর চেকের টাকা তুলে দেওয়ার কথা বলে ইউপি সদস্য আবুল হোসেন সুবিধাভোগীদের ভয় দেখিয়ে প্রত্যেক পরিবারের কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা করে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠে। 

নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্থ ছনকা গ্রামের আবদুর রশিদ বলেন, ব্যাংক থেকে আমাকে ৫০ হাজার টাকা দিয়েছিল। কিন্তু আবুল মেম্বার খরচাপাতির কথা বলে আমার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা নিয়েছে। 

ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্থ ছনকা গ্রামের পরাণ আলী বলেন, আমার হাতে আবুল মেম্বার ৫০ হাজার টাকা দিয়ে ২০ হাজার টাকা ফেরত নিয়েছে। 

আরো কয়েকজন সুবিধাভোগী ব্যক্তির স্বাক্ষাৎকার নিয়ে চলে আসার পর ওই ইউপি সদস্য তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে নিষেধ করে। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সুবিধাভোগীর স্ত্রী ও আরেক সুবিধাভোগীর মা জানায়, মেম্বার আমাদের বাড়িতে এসে বলে গেছে, কেউ জিজ্ঞাস করলে বলবেন মেম্বার টাকা ধার নিয়েছিল এখন টাকা ফেরত দিয়েছে। ওই ভুক্তভোগী আরো জানায়, আমার স্বামীর কাছ থেকে ২০ হাজার ও ছেলের কাছ থেকে আরো ২০ হাজার টাকা নিয়েছে আবুল মেম্বার। 
নদীতে বাড়ি ঘর হারিয়ে নিঃস্ব হওয়া এক নারীর ঠাঁই হয়েছে ছনকা সরকা‌রি আবাসনে। তিনি জানায়, খরচাপাতির কথা বলে মেম্বার আবুল তার কাছ থেকেও ২০ হাজার টাকা নিয়েছে। অবশ্য মেম্বার এ কথা কাউকে বলতে নিষেধ করেছিল। 

অনুসন্ধানে জানা যায়, ইউপি সদস্য আবুল হোসেন বরাইদ ইউনিয়নের ছনকা গ্রামের কমপক্ষে ৮টি পরিবারের কাছে অর্থনৈতিক সুবিধা নিয়েছে। তিনি সুবিধাভুগীদের কাছে বিভিন্ন খরচাপাতির কথা বলে টাকাগুলো আদায় করেছে। 

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য আবুল হোসেনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে এ প্রতিবেদকের পরিচয় নিশ্চিত হলে তিনি ফোন কেটে দেন। পরে একাধিকবার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায় নি। 
বরাইদ ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য আহম্মদ আলী বলেন, সরকারি এসব প্রকল্পের টাকা কোন জনপ্রতিনিধি আত্মসাৎ করলে জনগণ আস্থা হারিয়ে ফেলে। এদের কারণে অনুদানের টাকা ভেস্তে যায়। তিনি ওই ইউপি সদস্যের শাস্তি দাবি করেন।

সাটু‌রিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নদী ভাঙন কবলিত ২২টি পরিবারের জন্য ১১ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। প্রত্যেকটি পরিবারকে ৫০ হাজার টাকার চেক বিতরণ করা হয়েছে। কোন জনপ্রতিনিধি অনৈতিক সুবিধা নিলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সাটুরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ‌্যাড. আব্দুল মজিদ ফটো বলেন, আমি বিষয়টি অবগত নই। খোঁজ খবর নিয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।





Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2022 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.