× প্রচ্ছদ জাতীয় সারাদেশ রাজনীতি বিশ্ব খেলা আজকের বিশেষ বাণিজ্য বিনোদন ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

জেলমুক্তির পর ফের 'গ্যাস দুর্নীতিতে' শাহীন পালোয়ান

সাভার প্রতিনিধি

০১ আগস্ট ২০২২, ১৩:১৫ পিএম

সাভার ও আশুলিয়া এলাকায় দফায় দফায় অভিযান চালিয়েও বন্ধ করা যাচ্ছে না অবৈধ গ্যাস সংযোগ। দেদারসে চলছে এসব অবৈধ গ্যাস সংযোগের রমরমা ব্যবসা। এ এলাকাগুলো মূলত গার্মেন্টেস শ্রমিক কেন্দ্রিক আবাসিক এলাকা। এখানে গ্যাস সংযোগ না থাকলে বাড়ি ভাড়া দেয়া অনেকটা অসাধ্যই বলা যেতে পারে। যেহেতু বর্তমানে বৈধভাবে গ্যাস সংযোগ দেয়া বন্ধ আছে তাই বাড়ির মালিকরা পড়ছেন এসব অবৈধ গ্যাস সংযোগকারীদের ফাঁদে। 

কর্তৃপক্ষ অভিযান পরিচালনা করে গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়ে আসলেও তিতাসের কিছু অসাধু ঠিকাদার ও প্রভাবশালী মহল মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে বিচ্ছিন্ন সংযোগে গ্যাস সরবরাহের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। আর সাথে চলছে  নতুন সংযোগ দেয়ার রমরমা কারবারও। এসব অবৈধ লাইন থেকে প্রতি মাসে আদায় করা হচ্ছে  বিল। এতে সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব আর বৈধ গ্রাহকরা ভুগছেন গ্যাস সংকটে। বিস্ফোরণজনিত দুর্ঘটনার ঝুঁকিও বেড়ে গেছে কয়েক শতাংশে যার মূল কারন নিম্নমানের সংযোগ উপকরণের ব্যবহার।

অন্যদিকে আশুলিয়া ইউনিয়নে জেল থেকে ছাড়া পেয়েই আবারও অবৈধ গ্যাস সংযোগ প্রদানে মরিয়া হয়ে উঠেছে আশুলিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা শাহীন পালোয়ান। তার এসব অসাধু কাজে সঙ্গী হিসেবে স্থানীয় তারেক আহমেদ নামে আরেক ব্যক্তিরও নাম উঠে এসেছে অনুসন্ধানে। 

উল্লেখ্য শাহিন পালোয়ানকে এর আগে ২০২১ সালের ১৯ জুন রাত ১২টার দিকে আশুলিয়ার কাঠগড়ার পালোয়ানপাড়া থেকে বিদেশি পিস্তল ও তিন রাউন্ড গুলিসহ গ্রেপ্তার করে আশুলিয়া থানা পুলিশ। 

এলাকা সূত্রে জানা যায়, তিনি আশুলিয়ার পালোয়ান পাড়ার বিল্লাল পালোয়ানের ছেলে। তার বিরুদ্ধে ঐ এলাকার অবৈধ গ্যাস সংযোগ, চাঁদাবাজিসহ রয়েছে একাধিক মামলাও। কিছুদিন আগেই জেল থেকে ছাড়া পান তিনি। আর এসেই শুরু করেন তার অবৈধ গ্যাস সংযোগের নৈরাজ্য।

তার বিরুদ্ধে আশুলিয়া ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডে শখানেকের বেশি বাড়িতে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ নতুন কিছু নয়। 

শাহীন পালোয়ানের দেওয়া অবৈধ গ্যাস সংযোগ বেশ কয়েকবার তিতাস কর্তৃপক্ষ অভিযান চালিয়ে বিচ্ছিন্ন করার পর রাতের আঁধারে পুনরায় সংযোগ দেন তিনি। এই কর্মকান্ডে তার সাথে সাভার তিতাস কর্তৃপক্ষের একাধিক ঠিকাদার জড়িত থাকারও তথ্য পাওয়া গিয়েছে। আর ঠিকাদারদের মধ্যে এসব অবৈধ গ্যাস সংযোগের মূল হোতা হিসেবে নাম উঠে এসেছে কায়সার আলীর। তিনি বর্তমানে সাভার ঠিকাদার কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে নিযুক্ত রয়েছেন।

ঠিকাদারদের অবৈধ গ্যাস সংযোগে সত্যতা নিশ্চিত হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) রাতে ঠিকাদার কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক কায়সার আলীসহ আরও চারজনের বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপক আবু সাদাৎ মোহাম্মদ সায়েম।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় ব্যক্তিরা জানান, অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার পর দীর্ঘদিন তারা সিলিন্ডার গ্যাস ব্যবহার করতেন। শাহীন পালোয়ান জেল থেকে বেরিয়ে এসে তাদেরকে অবৈধ গ্যাস নিতে বাধ্য করে।  অনেকটা হুমকি ধামকির সম্মুখীন হয়ে বাধ্য হয়েছেন অবৈধ গ্যাস সংযোগ নিতে। তবে প্রতি মাসে বিল দিতে হয় বৈধ সংযোগের মতই। এসব বিলের টাকা কারা হাতিয়ে নিচ্ছেন এমন প্রশ্নের মুখে তারা কোনো ধরনের জবাব দিতে পারেননি। 

এ বিষয়ে একাধিকবার শাহীন পালোয়ানের মুঠো ফোনে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হলেও মুঠোফোনে তারেক আহমেদের সাথে কথা হয় গণমাধ্যমকর্মীদের। তবে তিনি সরাসরি অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন। প্রশ্ন না করতেই শাহীন পালোয়ানের এসব অবৈধ গ্যাস সংযোগের সাথে কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলে জানান তিনি। তার তিনটি বাড়িতে কে অবৈধ সংযোগ দিয়েছে প্রশ্ন করলে তিনি গ্যাস সংযোগকারীর নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলে জানিয়ে দেন গণমাধ্যমকে।

সাভার তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপক আবু সাদাৎ মোহাম্মদ সায়েম বলেন, অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার পরেও বারবার স্থানীয় প্রভাবশালীরা রাতের আঁধারে পুনরায় সংযোগ দিয়ে যাচ্ছেন। এসব কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকায় সাভার ঠিকাদার কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদকসহ চার জনের বিরুদ্ধে সাভার মডেল থানায় মামলা  দায়ের করা হয়েছে। নতুন করে যে সমস্ত এলাকায় গ্যাস সংযোগ দেওয়া হয়েছে দ্রুতই সেসব এলাকায় অভিযান চালিয়ে অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে বলেও জানান তিনি৷


Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2022 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.