× প্রচ্ছদ জাতীয় সারাদেশ রাজনীতি বিশ্ব খেলা আজকের বিশেষ বাণিজ্য বিনোদন ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

সাতক্ষীরা মেডিকেলে জনবল সংকট রোগীদের চিকিৎসা নিতে হচ্ছে বেসরকারি ক্লিনিকে

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

০২ আগস্ট ২০২২, ১৫:২৮ পিএম

সাতক্ষীরার ৭টি উপজেলার ২২ লাখ মানুষের আধুনিক চিকিৎসা সেবার একমাত্র ভরসাস্থল সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (সামেক)। গেল দুই বছর করোনার মধ্যেও এই হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সরা ভালো সেবা দিয়ে সুনাম অর্জন করেছেন। বর্তমানে প্রতিদিনই রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

পার্শ্ববর্তী জেলা খুলনা ও যশোরের কয়েকটি উপজেলার রোগীরাও এখানে আসছেন চিকিৎসা নিতে। কিন্তু, জনবল সংকটের কারণে রোগীদের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে এখানকার ডাক্তাররা। জনবল সংকটের কারনে এখানকার ডাক্তাররা সময় মতো রোগীদের চিকিৎসা দিতে না পারায় বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে রোগীদের।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়,দেশের দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের সর্বাধুনিক সুবিধা সংবলিত সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেন, আইসিইউ, সিসি ইউ, বান ইউনিট সহ অত্যাধুনিক সব যন্ত্রপাতি থাকার পরও জনবল সংকট থাকায় সেবা প্রত্যাশী অধিকাংশ রোগীদের চিকিৎসা নিতে হয় বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতালে। রোগীর চাপ বাড়ায় গেল বছর তড়িঘড়ি করে ৫০০ শয্যায় উন্নীত করা হয়। অথচ এখন পর্যন্ত হাসপাতালটিতে বাড়ানো হয়নি জনবল। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, সামেক হাসপাতালে বর্তমানে সৃজিত পদ সংখ্যা ১৬৫টি। এর মধ্যে ৬৩টি চিকিৎসক পদ শূন্য রয়েছে।

এ ছাড়া কর্মকর্তা-কর্মচারী পদ শূন্য আছে আরও ৭৬টি।অসুস্থ মাকে নিয়ে চিকিৎসা নিতে আসা আমিরুল জানান, তার বৃদ্ধা মা কয়েক মাস ধরে অসুস্থতায় ভুগছেন। অবস্থার অবনতি হলে গেল কয়েকদিন আগে তাকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু ডাক্তার ও জনবল সংকট থাকায় এখানে নিয়মিত ডাক্তার দেখতে আসেন না। মাঝে মাঝে ইর্ন্টানি ডাক্তারা এসে রোগী দেখে যান।স্থানীয়রা বলেন, জেলাবাসীর দীর্ঘ দিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ২০১১ সালে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হয়। এর পর ২০১৭ সালে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু হয়।

প্রথমে ২৫০ শয্যা নিয়ে চালু করলেও বর্তমানে ৫০০ শয্যায় উন্নীত করা হয়েছে হাসপাতালটি। তবে জনবল সংকটের কারণে এখানে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে এখানার কর্তৃকপক্ষ ও অধিকাংশ রোগী বিভিন্ন বে-সরকারি ও হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে হয়।খোঁজ নিয়ে আরো জানা যায়, চার বছর পর মাত্র ১৬৫টি পদ সৃষ্টি হয়েছে। এত কম জনবল দিয়ে এত বড় হাসপাতাল পরিচালনা করা খুবই কষ্টের ব্যাপার।স্থানীয়রা বলেন, হাসপাতালে আইসিইউ, সিসিইউ, সর্বাধুনিক অপারেশন থিয়েটার সহ বিশ্বমানের সব যন্ত্রপাতি দ্বারা সজ্জিত করা হয়েছে। কিন্তু ইনস্টুমেন্ট কেয়ারটেকার, ইটিজি টেকনিশিয়ান, ইসিজি, ইকো টেকনিশিয়ান, ডাইলাসিস টেকনিশিয়ান সহ গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রপাতি পরিচালনার জন্য কোনো জনবল নেই।

দীর্ঘদিন পড়ে থেকে নষ্ট হওয়ার পথে কোটি কোটি টাকা ব্যয়ে কেনা অধিকাংশ যন্ত্রপাতি।সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা.কুদরত-ই-খোদা বলেন, বর্তমানে সিনিয়র, জুনিয়র এবং সহকারী সার্জন সহ মোট ৯৯টি চিকিৎসক কর্মকর্তা পদের বিপরীতে কর্মরত রয়েছেন মাত্র ৩৬ জন চিকিৎসক। তবে নার্সের কোনো সংকট নেই। এছাড়া কর্মকর্তা কর্মচারীর শূন্য পদ ৭৬জন।

আউটসোর্সিং কর্মচারী রয়েছেন মাত্র ৭৬জন। এত অল্প সংখ্যাক জনবল দিয়ে এত বড় হাসপাতালে সেবা দিতে রীতিমত হিমশিম খেতে হচ্ছে আমাদের। তার ওপর গত বছর জরুরি বিভাগ চালু করা হয়েছে। কিন্তু, বার্ন ইউনিট, ক্যান্সার ইউনিট, নিউরো মেডিসিন নিউরো সার্জারি, সাইক্যটরি ইউনিটগুলো জনবল সংকটের কারণে চালু করা সম্ভব হয়নি। তবে আশা, করছি দ্রুত এই সংকট নিরসন হবে। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী সহ সংশ্লিষ্টদের কাছে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও রোগীর স্বজনরা।

Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2022 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.