× প্রচ্ছদ জাতীয় সারাদেশ রাজনীতি বিশ্ব খেলা আজকের বিশেষ বাণিজ্য বিনোদন ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

ক্ষণজন্মা এক কীর্তিমান পুরুষ শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত

গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধি

০৪ আগস্ট ২০২২, ১৬:২০ পিএম

ক্ষণজন্মা মহান মহানুভব, শ্রেষ্ঠ মানবতার প্রতীক  এবং মানব দরদী হিসেবে যুগে জুগে অবহেলিত অন্ধকারচ্ছন্ন সমাজের আলোকবাহী রুপে  পাঠিয়ে থাকেন তেমন একজন  আমাদের উত্তর বরিশালের কীর্তিমান মহান মানুষ হলেন  শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত

১৯২১ খ্রিষ্টাব্দ ইং এবং বাংলা ১৩৬২৭ সনের ২৭ চৈত্র বরিশাল জেলার গৌরনদী (বর্তমানে আগৈঝাড়া) উপজেলার  সরাইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি ভোলা হাইস্কুল থেকে প্রবেশিকা, বরিশাল বি.এম কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট (উচ্চ মাধ্যমিক) পাশ করেন পরে তিনি উচ্চ শিক্ষা গ্রহনের জন্য পশ্চিম বাংলার কলকাতার ইসলামিয়া কলেজে  ভর্তি হন কলেজ জীবনে তিনি কলকাতার বেকার ছাত্রাবাসে বসবাস করতেন কলেজ জীবন থেকেই তার সহপাঠি এবং বন্ধু ছিলেন বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সেখানে তিনি ধর্ম নিরপেক্ষ জনকল্যানমুখী রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন কলেজে ছাত্র অবস্থায় তিনি বঙ্গবন্ধু্র সেজো বোন আমেনা বেগমকে বিয়ে করেন ইসলামিয়া কলেজ থেকে বিএ পাশ করে তিনি ঢাকায় ফিরে আসেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে ডিগ্রি নিয়ে তিনি বরিশালে ফিরে জেলা আইনজীবি সমিতির সদস্যপদ লাভ করে আইন পেশায় মনোনিবেশ করেন  আইনজীবী রাজনীতিক পদে অধিষ্টিত ছিলেন ১৯২১ থেকে ১৯৭৫ পর্যন্ত

১৯৪৭ সালে ভারত বর্ষ বিভক্ত হয়ে ধর্ম ভিত্তিক পাকিস্তান রাষ্টের জন্ম হলে তা তিনি মেনে নিতে পারেন নি সময় কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য না হয়েও তিনি সমাজতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থার প্রতি ঝুঁকে পড়েন তখন থেকেই তিনি গণতান্ত্রিক দলের বরিশাল জেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হন ১৯৫০ সালে বরশাল জেলার বিভিন্ন স্থানে সংগঠিত সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার সময়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের পাশে দাঁড়ান কারণেই হিন্দু সম্প্রদায় অধ্যুষিত গৌরনদীতে তখন কোনো দাঙ্গা হতে পারেনি ১৯৫২ সালে ভাষা আন্দোলনে সস্ক্রিয় ভুমিকা পালন করে   গণতন্ত্রী দলের সাধারণ সম্পাদকের  দায়িত্ব গ্রহণের মধ্য দিয়ে তাঁর রাজনৈতিক জীবনের সূচনা হয়  ১৯৫৬-৫৭ সালে ১৯৫৭ সালে  ২৫ জুলাই তিনি ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) গঠিত হলে তিনি এর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন ১৯৬৪ সালে তিনি ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কমিটিরও সদস্য ছিলেন ১৯৬৬ সালে বঙ্গবন্ধু তৎকালীন পূর্ব পাকিস্থানের সার্বিক সায়ত্তশাসন সংবলিত দফা দাবি উত্থাপন করলে, আব্দুর রব সেরনিয়াবাত আওয়ামীলীগের সাথে যুক্ত না হয়ে সায়ত্তশাসন  দাবিকে আরো বেগবান করতে জাতীয় মুক্তিজোট নামে একটি সংগঠন গড়ে  তোলেন    ১৯৬৯ সালে সেরনিয়াবাত আওয়ামীলীগে যোগ দেন  এবং দেশব্যাপী ১১ দফা দফা আন্দোলন  শুরু হলে , বরিশালে  ওই  আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন তিনি তিনি ১৯৭০ থেকে ১৯৭২ সাল পর্যন্ত তিনি আওয়ামী লীগ ওয়ার্কিং কমিটির সদস্য ছিলেন ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে তিনি বরিশাল থেকে জাতীয় পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন তিনি মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন এবং মুজিবনগরে অস্থায়ী বাংলাদেশ সরকার পরিচালনায় বিশিষ্ট ভূমিকা রাখেন ১৯৭২ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মন্ত্রিসভার সদস্য হিসেবে তিনি ভূমি প্রশাসন, ভূমি সংস্কার এবং বন্যা নিয়ন্ত্রণ, পানি সম্পদ বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেন   আবদুর রব সেরনিয়াবাত ১৯৭৩ সালে বরিশাল থেকে জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হন তিনি বাংলাদেশ কৃষক-শ্রমিক আওয়ামী লীগের (বাকশাল) কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন এদেশের কৃষকদের মুক্তির লক্ষ্যে তিনি কৃষক আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন


Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com, বিজ্ঞাপন: 01894-944204

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2022 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.