× প্রচ্ছদ বাংলাদেশ বিশ্ব রাজনীতি খেলা বিনোদন বাণিজ্য লাইফ স্টাইল ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

বরিশালে দুর্গাপূজায় নির্মিত তোরণ নিয়ে আলোড়ন

বরিশাল ব্যুরো

০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৭:৩১ পিএম

করোনা মহামারির দুটি বছর কাটিয়ে এবার ব্যাপক আয়োজনের মধ্যদিয়ে উপজেলা পর্যায়ে দেশের সবচেয়ে বেশি পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলায়।

ওই উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের ১৬৩টি মণ্ডপে এবার মহাধুমধামের মধ্যদিয়ে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বুধবার দশমী তিথিকে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যদিয়ে পুজার আচার শেষ হয়েছে। এ বছর পুরো জেলাজুড়ে দর্শনার্থীদের মধ্যে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে আগৈলঝাড়া উপজেলার রত্মপুর ইউনিয়নের অজপাড়া গাঁ বারপাইকা সার্বজনীন দূর্গা মন্দিরের সুদৃশ্য তোরণ। পুরো তোরণজুড়ে রয়েছে বিভিন্ন দেব-দেবীর মুর্তির ছবি।

সরেজমিনে দেখা গেছে, দেবাদিদেব মহাদেবের স্থাপন করা বিশাল মূর্তির নীচ দিয়ে পানির ওপর নির্মিত সুরঙ্গ পথে প্রবেশ ও নির্মিত বিশালাকৃতির সেতুর ওপর দিয়ে পুজা মন্দির থেকে বের হচ্ছেন আগত হাজার হাজার দর্শনার্থীরা। প্রবেশের সুরঙ্গ পথের মধ্যেই স্থাপন করা হয়েছে বিভিন্ন দেব-দেবীর মুর্তি। মন্দির সংলগ্ন স্কুল মাঠে প্রতিদিন মধ্যরাত পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

বারপাইকা গ্রামের যুব সমাজের উদ্যোগে নয়নাভিরাম সুদৃশ্য নির্মাণ শৈলীর তোরণ নির্মানের কাজ করেছেন এলাকার তিন হাজার স্বেচ্ছাশ্রম শ্রমিক। পুজার দুই মাস আগে থেকে তারা কাজে লেগেছেন। তাদের সেই শ্রম স্বার্থক করেছে বরিশালের দর্শনার্থীসহ ভারত থেকে আসা দর্শনার্থীদের ভূয়শী প্রসংশায়।

প্রতিদিন আগৈলঝাড়াসহ পার্শ্ববর্তী জেলা ও উপজেলার হাজার হাজার দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভীরছিলো বারপাইকা কেন্দ্রীয় সার্বজনীন পূজা মন্ডপের নয়নাভিরাম তোরন, সুরঙ্গ পথ দেখা ও মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করার জন্য। দূর্গাপুজা উপলক্ষে ওই এলাকায় গত পাঁচদিন ধরে বসেছিলো আনন্দ মেলা।

মন্দির কমিটির সভাপতি নিহার রঞ্জন রায় বলেন, ১৯৬৭ সাল থেকে রত্নপুর ইউনিয়নের বারপাইকা গ্রামে সার্বজনীন দূর্গা পুজা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। বারপাইকা যুবসমাজের উদ্যোগে গত নয় বছর ধরে বাহারী ভিন্ন রকমের আয়োজনে পুজার ব্যাপকতা লাভ করছে। এবছর দূর্গা পুজা উপলক্ষে দুই মাস আগে থেকে মন্দিরের সামনে সুদৃশ্য তোরণ নির্মানের কাজ শুরু করা হয়। দিন-রাত স্বেচ্ছাশ্রমে কঠোর পরিশ্রম করে বাঁশ, কাঠ, কাপড় ও কশীটসহ আনুসাঙ্গিক মালামাল দিয়ে দুই মাস কাজ করে নির্মান করা হয়েছে সু-দৃশ্য নয়নাভিরাম তোরণ।

অজপাড়া গাঁয়ে সুদৃশ্য ও নয়নাভিরাম তোরণ দেখে ভারত থেকে আসা সরস্বতী ব্যাপারী ও রঙ্গলাল বাড়ৈ অভিভুত হয়ে বলেন, অজপাড়া গাঁয়ে দূর্গা পুজার সকল আয়োজন দেখে সত্যিই আমরা মুগ্ধ হয়েছি। এরমধ্যে বিশেষ করে তোরণটি আমাদের হৃদয় ছুঁয়ে গেছে। মন্দির সংলগ্ন স্কুল মাঠে প্রতিদিন সন্ধ্যার পর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত চলা মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও আমরা মুগ্ধ হয়েছি।

মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর বাড়ৈ বলেন, পুজা উলক্ষে যে আয়োজন হয়েছে তাতে প্রায় ২০লাখ টাকা খরচ হতো। তবে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করায় খরচ অনেক কম হয়েছে। মন্দিরের সাজসজ্জা ও তোরণ নির্মানে পাঁচ শতাধিক বাঁশ ও ৫০টি গাছ ব্যবহৃত হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

আগৈলঝাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুনীল কুমার বাড়ৈ বলেন, উপজেলা পর্যায়ে ১৬৩টি মন্দিরে পুজার মাধ্যমে বরিশাল বিভাগেরতো নিশ্চয়ই; দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পুজা হচ্ছে আগৈলঝাড়ায়। এরমধ্যে বারপাইকা কেন্দ্রীয় সার্বজনীন পুজা মন্ডপে বিগত কয়েক বছর যাবত ব্যতিক্রম সব আয়োজন করা হয়। যা সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ জুগিয়ে আসছে।

Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com, বিজ্ঞাপন: 01894-944204

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2022 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.