× প্রচ্ছদ বাংলাদেশ বিশ্ব রাজনীতি খেলা বিনোদন বাণিজ্য লাইফ স্টাইল ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

সিরাজদিখানের ভেটেরিনারি হাসপাতালে লোকবল সংকট

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

০৩ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৫২ পিএম

মুন্সীগঞ্জ সিরাজদিখান উপজেলা ভেটেরিনারি হাসপাতাল লোকবল সংকটের মধ্য দিয়ে প্রাণীদের চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে খামারি ও স্থানীয়রা। তারা জানান, হাসপাতালে দীর্ঘদিন ধরে জনবল সংকট চলছে। এই জনবল সংকটের মধ্যে দিয়ে উপজেলার খামারিদের খামারিদের বাধ্য হয়েই বেশিরভাগ সময়ে ছুটে গবাদিপশু, হাঁস মুরগী, ছাগল, ভেড়া, কুকুর, আসতে হচ্ছে প্রাণী সম্পদ হাসপাতালে।

বিড়ালসহ হাজার হাজার প্রাণীকে চিকিৎসাসেবা এখানে পশু নিয়ে আসার পর খামারিরা তাদের দিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। ভুক্তভোগী খামারিদের গবাদিপশু বা প্রাণীদের চিকিৎসাসেবা দিতে আরো জানান, মাঠ পর্যায়ে যেসব ফিল্ড পারছেন। কিন্তু হাসপাতালটিতে প্রয়োজনীয় অফিসারদের যথা সময়ে না পাওয়াতে জনবল না থাকায় যথা সময়ে পরিপূর্ণভাবে সেবাটা পাচ্ছেনা। হাসপাতালটির একজন ভেটেরিনারি সার্জন থাকলে আরো ভালোসেবা পাওয়া যেতো। কিন্তু জনবল সংকটের কারণে বিভিন্ন সময়ে খামারিদেরকে নানা বিরম্বনায় পড়তে হচ্ছে।

সুত্র জানায়, প্রাণিসম্পদ হাসপাতালটিতে মোট ১১টি পদের মধ্যে বর্তমানে আছেন ৬ জন। বাকি ৫টি পদে মাঠকর্মী ৩জন, একজন এমএলএফ, আরেকজন অফিস সহকারী ডেপোটেশনে রয়েছেন ২ বছর ধরে। ফলে এ পদটিও শূন্য রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটিতে ভেটেরিনারি সার্জন ছাড়াই চলছে চিকিৎসাসেবা। এছাড়া আরো গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি পদে নেই কোন লোকবল। ফলে হাস, মুরগি, কবুতর ও গবাদি পশুর খামারিরা রোগাক্রান্ত গবাদি পশুর চিকিৎসা সেবা নিতে ভোগান্তিতে পড়ছেন। 

এদিকে লোকবল সংকটের কারণে দায়িত্বপ্রাপ্তরাও প্রাণীদের চিকিৎসাসেবা প্রদানে হিমশিম খাচ্ছে। জনবল সংকটের মধ্য দিয়ও স্টাফরা। পরিপূর্ণ সেবা দেয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। দিন দিন গবাদি পশু, হাঁস-মুরগী, কবুতরসহ নানা ধরনের প্রাণীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। 

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, হাসপাতালটিতে গবাদিপশুকে দেয়া হচ্ছে চিকিৎস-সেবা। সেখানে উপ-সহকারি প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তাসহ এম.এল.এসরা প্রাণীদের নানা ধরনের চিকিৎসাসেবা ও প্রয়োজনীয় ঔষধ সর্বাহ করছেন। তবে লোকবল সংকটের কারণে অনেকটা সময় অপেক্ষা করেই খামারিরা তাদের পশুপাখি ও অন্যান্য পোশা প্রাণীদেরকে চিকিৎসা করিয়ে নিতে দেখা গেছে। গরুর খামারি নাজমুল হাসান জানান, আগে ফোন করলে বাড়ীতে গিয়ে পাঠ পর্যায়ের লোকজন গিয়ে চিকিৎস- সেবা দিয়ে আসতো। এখন আর আগের মতো লোকালয়ে পাঠ পর্যায়ের পশু চিকিৎসকদের দেখা মিলেনা যার কারণে গবাদিপশু নিয়ে এখানে আসঠি চিকিৎসা করাতে। এখানে আসলে সরকারি কিছু ঔষধ ও চিকিৎসাসেবা পাই। যেই ঔষধ সর্বাহে না থাকে সেগুলোকে কিনে নেই। খামারি নাজমুল হাসান জানান, মাঠ পর্যায়ে যারা গবাদিপশুর চিকিৎসাসেবা দেন তাদেরকে সব সময় পাওয়া যায় না। কিছু সার্জন আছেন তাদেরকে অনেকবার ফোন করেও বাড়ীতে নেয়া যায়না। যার কারণে এখানে আসতে হয়। মাঠ পর্যায়ে সেবাটা পাওয়া গেলে ভালো হতো। বিনামূল্যে চিকিৎস- সেবা ও ঔষধ পেতে গবাদিপশু নিয়ে হাসপাতালে ছুটে আসি। কিন্তু এখানে আসলে শুনি সার্জন নেই, বাধ্য হয়ে এখানে যারা আছে তাদের দিয়েই চিকিৎসা করাতে হয়। এখানে যদি জনবল নিয়োগ দিতো তাহলে এখানকার পশু সেবার মান আরো বৃদ্ধি পেতো বলেও জানান তিনি। 

সিরাজদিখান উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা: শবনম সুলতানা বলেন, সরকার যখন জনবল নিয়োগ দিবে তখনই কাটবে এখানকার জনবল সংকট।

প্রতিষ্ঠানটিতে জনবল সংকট থাকা সত্বেও আমরা খামারিদেরকে শতভাগ সেবা দিয়ে যাচ্ছি। জনবল নিয়োগ হলে সেবার মান আরো বৃদ্ধি পাবে।


Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com, বিজ্ঞাপন: 01894-944204

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2023 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.