× প্রচ্ছদ বাংলাদেশ বিশ্ব রাজনীতি খেলা বিনোদন বাণিজ্য লাইফ স্টাইল ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

সিলেট-ঢাকা সড়কে ড্রাম-গাছ ফেলে অবরোধ, গাড়িতে আগুন দেয়ার চেষ্টা

সিলেট ব্যুরো

৩১ অক্টোবর ২০২৩, ১৫:২০ পিএম

বিএনপির ডাকা তিন দিনের অবরোধের প্রথম দিনে সিলেটে দক্ষিণ সুরমার তেতলি এলাকায় সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে ড্রাম ও গাছ ফেলে সড়ক অবরোধ করা হয়। এছাড়া, যাত্রীবাহী একটি বাসে ভাঙচুর চালিয়ে আগুন দেওয়ার চেষ্টা করে।

মঙ্গলবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ গিয়ে সড়ক থেকে ড্রাম ও গাছ সরিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক করে। 

স্থানীয়রা জানান, সিলেট জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক দিলোয়ার হোসেন দিনার ও মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি আহসানের নেতৃত্বে তেতলিতে পিকেটিং করা হয়। এছাড়া সকাল থেকেই বিএনপির নেতাকর্মীরা সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের অতির বাড়ি এলাকায় অবস্থান নেয়। এসময় তারা সড়কে গাছ ফেলে সড়ক অবরোধ করে স্লোগান দিতে থাকে। গাড়ি দেখতে পেলেই ধাওয়া দিচ্ছে। এসময় পুলিশের সঙ্গে অবরোধকারীদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

অন্যদিকে, ১০টার দিকে দক্ষিণ সুরমার চন্ডিপুলে একটি বাসে ভাঙচুর চালিয়ে আগুন দেওয়ার চেষ্টা করে অবরোধকারীরা। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ চলে আসলে তারা পালিয়ে যায়।

এদিকে, সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে দূর পাল্লার কোনো বাস ছেড়ে যায়নি। কুমারগাঁও বাসস্ট্যান্ড থেকে ছেড়ে যায়নি কোনো বাস। নগরীতে মানুষের উপস্থিতিও কম।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ইলিয়াস শরীফ জানান, সড়কে টহল বৃদ্ধি করা হয়েছে। মানুষের জানমালের নিরাপত্তায় পুলিশ প্রস্তুত রয়েছে।


সিলেটে ৯ মামলায় আসামি নয় শতাধিক নেতাকর্মী

হরতালে সংঘর্ষ, ভাঙচুর ও পুলিশ আক্রান্তের ঘটনায় সিলেটের ৮টি থানায় ৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এসব মামলায় ৯০৯ জনকে আসামি করা হয়েছে।

এরমধ্যে সিলেট মেট্রোপলিটন এলাকার ৪টি থানায় দায়ের করা ৫টি মামলায় এজাহার নামীয় বিএনপির ৬৯ নেতাকর্মী এবং অজ্ঞাত ৪৭০ জনকে আসামি করা হয়েছে। আর জেলার চারটি থানায় নাশকতার অভিযোগে দায়েরকৃত ৪ মামলায় এজাহার নামীয় ৭০ নেতাকর্মী এবং অজ্ঞাত ৩০০ জনকে আসামি করা হয়েছে।  

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিলেট মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ ও জেলার সহকারি পুলিশ সুপার (গণমাধ্যম) মো. সম্রাট তালুকদার।

এসএমপির উপ কমিশনার (ডিসি) আজবাহার আলী শেখ জানান, রোববার হরতাল চলাকালে পুলিশের ওপর হামলা, গাড়ি ভাংচুর, সড়ক অবরোধের ঘটনায় ওইদিন রাতেই মামলাগুলো দায়ের করা হয়েছে।

তিনি বলেন, মেট্রোপলিটন এলাকার কোতোয়ালি থানায় পুলিশ আক্রান্তের ঘটনা ও গাড়ি ভাঙচুরের ২টি মামলা, এসএমপির জালালাবাদ থানায় পুলিশ আক্রান্তের ১টি, এয়ারপোর্ট থানায় গাড়ি ভাঙচুরের আরেকটি এবং দক্ষিণ সুরমা থানায় নাশকতার অভিযোগে ১টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।  

তিনি আরও বলেন, নগরের বন কলাপাড়ায় সমাজ সেবা কর্মকর্তার সরকারি গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগে ওই কর্মকর্তা বাদি হয়ে এয়ারপোর্ট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। সুবিদবাজার এলাকায় মোটর সাইকেল ভাঙচুরের অভিযোগে জাকির নামে এক ছাত্রলীগ কর্মী বাদি হয়ে কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা করেন। একই থানার জিন্দাবাজারের সিটি সেন্টার-কাজী ইলিয়াছের সংঘর্ষে পুলিশ বাদি হয়ে মামলা দায়ের করে। এছাড়া শহরতলীর তেমুখি এলাকায় গাড়ি ভাঙচুর ও পুলিশ আক্রান্তের ঘটনায় জালালাবাদ থানায় ১টি, তেতলি এলাকায় সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে গাছ ফেলে, টায়ারে আগুন দিয়ে বিক্ষোভের ঘটনায় দক্ষিণ সুরমা থানায় পৃথক আরেকটি মামলা করা হয়। এসব ঘটনায় ৯ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এছাড়া রোববার হরতালকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে নগরের বিভিন্ন এলাকায় ১৮০ রাউন্ড শর্টগানের গুলি, একটি টিয়ারগ্যাস ও ১৫টি সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ করা হয়। দায়িত্ব পালনকালে ১০ পুলিশ সদস্য আহত হন।

সিলেট জেলার সহকারি পুলিশ সুপার (গণমাধ্যম) সম্রাট তালুকদার বলেন, রোববার বিএনপি-জামায়াতের ডাকা হরতাল চলাকালে নাশকতার অভিযোগে জেলার জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট, জকিগঞ্জ ও গোলাপগঞ্জ থানায় একটি করে ৪টি মামলা দায়ের করা হয়। এসব মামলায় এজাহার নামীয় ৭০ জন এবং অজ্ঞাত ৩০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। আর গ্রেফতার দেখানো হয়েছে ৭ জনকে।

এর আগে গত শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির মহাসমাবেশ ঘিরে সংঘর্ষের পর ২৯ অক্টোবর রোববার সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দেয় বিএনপি। নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিকে মহাসমাবেশে হট্টগোল চলার সময় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর রোববার সারা দেশে হরতালের ঘোষণা দেন। এরই ধারাবাহিকতায় সিলেটে হরতালে উত্তাপ ছড়ায়।


নাশকতা ঠেকাতে সিলেটে মোড়ে মোড়ে পুলিশ-বিজিবি-র‌্যাব

বিএনপি ও জামায়াতের ডাকা তিন দিনের অবরোধ কর্মসূচি মঙ্গলবার সকাল থেকে শুরু হয়েছে। দেশের সব মহাসড়কের ঢাকা-সিলেট মহাসড়কেও টহল দিচ্ছে পুলিশ-বিজিবি-র‌্যাব। অবরোধের সময় নাশকতা ঠেকাতে শক্ত অবস্থান নিয়েছে প্রশাসন। এ ছাড়া পুলিশ, র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে।

অবরোধ কর্মসূচিতেও বিএনপি-জামায়াতের নাশকতার শঙ্কা উড়িয়ে দিচ্ছেন না প্রশাসনের কর্মকর্তারা। চোরাগোপ্তা হামলার আশঙ্কা করা হচ্ছে। যাত্রীচলাচল বা পণ্য পরিবহনে কোথাও বাধা দেওয়া হলে অথবা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একটি সূত্র জানায়, টহলের পাশাপাশি চলছে গোয়েন্দা নজরদারি। বিশেষ করে মহাসড়ক ও রেলপথের নিরাপত্তায় বাড়তি নজর দেওয়া হয়েছে।

সরেজমিনের দেখা যায়, নগরের বন্দরবাজার, জিন্দাবাজার ও চৌহাট্টা, আম্বরখানাসহ বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে পুলিশ। প্রস্তুত রয়েছে পুলিশের সাজোয়া যান এপিসি। সিএনজি অটোরিকশা, ট্রাক, প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাস চলাচল করতে দেখা গেছে।

এদিকে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ৩ দিনের জন্য সিলেটে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার সমন্বয়ের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে কনট্রোল রুম খোলা হয়েছে। কোনো ধরনের নাশকতা বা বিশৃঙ্খলা পরিলক্ষিত হলে অথবা আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত কোনো মতামত থাকলে মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এই কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের ফোন নাম্বার হচ্ছে- ০১৯৭৯০৬৭৪৫৪।


সিলেটে ছাড়ছে না দূরপাল্লার বাস, চলছে ট্রেন

বিএনপি-জামায়াতের ডাকা অবরোধের প্রথম দিনে ৩১ অক্টোবর  মঙ্গলবার সিলেটে চলছে না কোনো বাস। সিলেট থেকে দূরপাল্লার কোনো বাসও ছেড়ে যায়নি। তবে সিএনজিচালিত অটোরিকশা, নিত্যপণ্যবাহী ও ব্যক্তিগত গাড়ি সামান্য পরিমাণে চলছে। এদিকে, দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকায় চাপ বেড়েছে ট্রেনে। সকাল থেকেই সিলেট হতে শিডিউলমতো ছেড়ে গেছে সকল ট্রেন। 

সিলেট জেলা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলী আকবর রাজন বলেন, যাত্রী নেই তাই সিলেটে কোনো বাস চলছে না। তাছাড়া পথে বের হলে গাড়ির ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে, তাই পরিবহণ শ্রমিকরা গাড়ি নিয়ে বের হতে চাচ্ছেন না।

সিলেট রেল স্টেশন মাস্টার মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম বলেন, সিলেটের ট্রেন যোগাযোগ স্বাভাবিক রয়েছে। প্রতিদিনের মতো যথাসময়ে সিলেট ছেড়ে গেছে ট্রেন।

তিনি বলেন, আজ ট্রেনে যাত্রীর চাপ একটু বেশি। হয়ত বাস চলছে না এজন্য এমন হয়েছে।

Sangbad Sarabela

সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । সম্পাদক: 01703-137775 । [email protected] । বিজ্ঞাপন ও বার্তা সম্পাদক: 01894944220

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2024 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.