× প্রচ্ছদ বাংলাদেশ বিশ্ব রাজনীতি খেলা বিনোদন বাণিজ্য লাইফ স্টাইল ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

শরীয়তপুরে অন্তঃসত্ত্বার ওপর হামলার অভিযোগ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬:১৮ পিএম

শরীয়তপুরের গোসাইরহাটে বেবী বেগম (২৮) নামে নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক নারী হামলার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাতে গুরুতর আহত অবস্থায় শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। 

এরআগে বিকালে উপজেলার নাগেরপাড়া ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের পূর্বেরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

ওই অন্ত:সত্ত্বা নারীর ভাসুর মোয়াজ্জেম সরদার (৩৫), জা জোসনা বেগম (৩০) ও ননদ ফাতেমা বেগম (২৭)ও হামলার শিকার হয়েছেন। এঘটনায় ওই অন্ত:সত্ত্বার নারীর স্বামী ফারুক সরদার গোসাইরহাট থানায় একটি অভিযোগ করেছেন।

ফারুক সরদার জানান, রবিবার দুপুরে গোসাইরহাট উপজেলার নাগেরপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক খানের চাচাতো ভাই আজিজুল, এনামুল, সলেমান পূর্বেরচর গ্রামের এক স্কুলছাত্রকে মারধর করছিলো। এসময় ওই স্কুল ছাত্রের প্রতিবেশী আব্দুল জলিল সরদারের ছেলে ফারুক সরদার বাঁধা দিলে দেখে নিবে বলে হুমকি দিয়ে চলে যায় তারা। পরে বিকালে ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক খানের নির্দেশে আজিজুল, এনামুল, সলেমানসহ ২০/২৫ জন লোক ফারুক সরদারের বাড়ি হামলা করে। ফারুক সরদারকে বাড়িতে না পেয়ে তার নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বেবী বেগম, বড়ভাই মোয়াজ্জেম সরদার, ভাবী জোসনা বেগম, ও বোন ফাতেমা বেগমকে মারধর করে। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে গোসাইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে রাতে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বেবী বেগমের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় গোসাইরহাট থানায় একটি অভিযোগ করেছেন।

এ ব্যাপারে ফারুক সরদার বলেন, আমার এক প্রতিবেশী স্কুলছাত্রকে মোজাম্মেল চেয়ারম্যানের ভাই এবং চাচারা মারধর করছে। আমি বাঁধা দেয়ায় আমাকে বাড়িতে এসে খোঁজে। পরে আমাকে না পেয়ে আমার বাড়ি ঘরে হামলা ও লুটপাট করে। আমার নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী, বড় ভাই, ভাবী ও বোনকে মারধর করেছে। আমি এর বিচার চাই। 

আহত বেবী বেগম বলেন, মোজাম্মেল চেয়ারম্যানের ভাই এক স্কুলছাত্রকে মারতে ছিলো। আমার স্বামী বাঁধা দেয়ায় বাড়িতে এসে তাকে খোঁজাখুঁজি করে। পরে বাড়িতে না পেয়ে বাড়িঘর ভাঙচুর করে। আমাকে লাথি দিয়েছে, মারধর করেছে। আমার ভাসুর, জা ও ননদকেও মারধর করেছে। তারা গোসাইরহাট হাসপাতালে ভর্তি। 

অভিযোগ অস্বীকার করে নাগেরপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক খান বলেন,  আমি কোনোভাবেই এর সাথে জড়িত না। যদি কোনো অন্ত:সত্ত্বা নারীর ওপর হামলা হয়, সেটা অবশ্যই ন্যাক্কারজনক। প্রকৃত হামলাকারীদের আইনের আনার দাবি জানাচ্ছি।

গোসাইরহাট থানার ওসি পুস্পেন দেবনাথ বলেন, একটা অভিযোগ হয়েছে, আমরা তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Sangbad Sarabela

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । [email protected], বিজ্ঞাপন: 01894-944204

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2024 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.