× প্রচ্ছদ বাংলাদেশ বিশ্ব রাজনীতি খেলা বিনোদন বাণিজ্য লাইফ স্টাইল ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

অভাব ঘুচাতেই প্রীতিকে ঢাকা পাঠায়, ফিরল লাশ হয়ে

মো. আব্দুল কাইয়ুম, মৌলভীবাজার

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১:৫৮ এএম । আপডেটঃ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১:৫৮ এএম

প্রীতির মা নমিতা উরাং

চার সন্তানদের মধ্যে একজন আগেই মারা গেছে। অভাব আর টানাটানির সংসার। সেই অভাব ঘুচাইতে শিশু প্রীতি উরাংকে ঢাকা পাঠিয়েছিলাম। পরে ফিরলো লাশ হয়ে। অনেকটা আক্ষেপের সুরে এসব কথা বলেন মিরতিঙ্গা চা বাগানে বসবাসকারী বাবা লুকেশ উরাং।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) আলাপকালে তিনি আরো বলেন, আমার মোট চার সন্তান। এক সন্তান আগেই মারা গেছে। সেদিন মারা গেল মেয়েটাও। এখন এক ছেলে এক মেয়ে আছে। আমার টানাটানির সংসার। হাওর-বিলে কুচিয়া মাছ ধরে বাজারে বিক্রি করে কোনরকম সংসার চালাই।

মৃত্যুর আগ পর্যন্ত প্রীতি রাজধানীতে ডেইলি স্টার পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ আশফাকুল হক দম্পতির বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করতো। সম্প্রতি সৈয়দ আশফাকুল হকের বাসায় শিশু গৃহকর্মী প্রীতি উরাং এর নয় তলা থেকে পড়ে রহস্যজনক মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় মিরতিঙ্গা চা বাগানসহ মৌলভীবাজারে চলছে মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন। গত শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মৌলভীবাজার শহরের চৌমুহনা এলাকায় সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় এবং গত রোববার (১১ ফ্রেব্রুয়ারি) বিকেলে মির্তিংগা চা বাগানে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রীতির মা নমিতা উরাং বলেন, ঢাকায় মেয়েকে দেয়ার জন্য আমাদের ১০ হাজার টাকা দিয়েছিলো। আমরা টাকা আনি নাই। বলেছিলাম, টাকাগুলো থাকুক। মেয়ের বিয়াশাদি লাগলে টাকাগুলো একসাথে বিয়াশাদিতে লাগাবো। এটার আমার মনের ইচ্ছা ছিল। পরে তো মেয়ে মারা যাওয়ার পর ৫ হাজার টাকা দিয়েছিল।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের মনু-দলই ভ্যালির সভাপতি ধনা বাউরি বাংলানিউজকে বলেন, এই পরিবারটাকে আমি ভালোভাবে জানি। লুকেশ উরাংরা মোট চার ভাই। মাত্র এক ভাই চা বাগানের স্থায়ী শ্রমিক। আর তিন ভাইয়ের সংসার চলে টানাপোড়েন। এই তিন ভাইয়ের মধ্যে লুকেশের অবস্থা আরো করুন। 

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে এ ব্যাপারে আরো কর্মসূচি রয়েছে বলে জানান ধনা বাউরি।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং কমলগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রামভজন কৈরী বলেন, প্রীতির মৃত্যুর ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। প্রভাবশালীরা সবসময়ই চা বাগানের সহজ-সরল মানুষদের সরলতার সুযোগ নিয়ে থাকেন। আর এই সরলতার সুযোগেই পিতা তার কন্যাকে হারিয়েছেন। প্রীতির মৃত্যুর প্রকৃত কারণ আমরা জানতে চাই।

বাদী তুলনায় বিবাদী অত্যন্ত প্রভাবশালী। সেজন্য উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত ছাড়া এই সত্য উদঘাটন করা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করে রামভজন কৈরী।

Sangbad Sarabela

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । [email protected], বিজ্ঞাপন: 01894-944204

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2024 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.