× প্রচ্ছদ জাতীয় সারাদেশ রাজনীতি বিশ্ব খেলা আজকের বিশেষ বাণিজ্য বিনোদন ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

‘জলবায়ু পরিবর্তনে চরম প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঝুঁকিতে বাংলাদেশ’

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৪ জুন ২০২২, ১২:০৬ পিএম

বন্যাসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে কৃষকের কাছে আগাম কৃষি আবহাওয়া সম্পর্কে তথ্য পৌঁছানো এবং তাদের সচেতন করা জরুরি বলে মনে করছেন কৃষিবিদসহ বিশিষ্টজনেরা। একই সাথে এসব তথ্যবার্তা তৃণমূলসহ সর্বস্তরের কৃষকে কাছে পৌঁছে দিতে গণমাধ্যমে তথ্যভিত্তিক প্রতিবেদন প্রকাশে সাংবাদিকদের প্রতি আহ্বান জানান তারা। এসময় তারা জানান, বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তন এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঝুঁকিতে থাকা প্রথম সারির দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান সপ্তম।

কৃষি আবহাওয়া তথ্য পদ্ধতি উন্নতকরণ প্রকল্পের আওতায়  বৃহস্পতিবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটের থ্রি ডি সেমিনার হলে প্রথমবারের মতো আয়োজিত সাংবাদিক অবহিতকরণ কর্মশালায় তারা এসব বলেন। এসময় নির্ভরযোগ্য কৃষি আবহাওয়া বিষয়ক তথ্য কৃষকদের মাঝে সময়মতো পৌঁছে দিতে সাংবাদিকদের সহযোগিতা করার আহ্বান জানান। কারণ কৃষি প্রধান বাংলাদেশে কৃষি আবহাওয়ার আগাম তথ্য বার্তা পৌঁছাতে না পারলে প্রাকৃতিক দুর্যোগে কৃষিপণ্যের উৎপাদন ক্ষতি কমানো সম্ভব নয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো: বেনজীর আলম বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঝুঁকিতে থাকা এদেশের ফসল রক্ষায় প্রতিকূল আবহাওয়ার তথ্য কৃষকদের কাছে পৌঁছানোর কোন বিকল্প নেই। আর কৃষক যাতে তার কষ্ট করা ফসলের সঠিক দাম পায় তা নিশ্চিত করা জরুরি। এর জন্য কৃষি পণ্যের মূল্য সংযোজন বাড়াতে হবে। 

এর আগে কর্মশালার শুরুতে কৃষি আবহাওয়া তথ্য পদ্ধতি উন্নতকরণ প্রকল্পের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে তথ্যভিত্তিক প্রতিবেদন উপস্থাপন প্রকল্পটির পরিচালক ড. মোহাম্মদ শাহ কামাল খান। এসময় তিনি বলেন, জাতিসংঘের আইপিসিসি-এর তথ্য অনুযায়ী বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বিশ্বব্যাপী তাপমাত্রা ১ শতাংশ বেড়েছে; যা ২০৩০ সাল নাগাদ তা ১ দশমিক ৫ শতাংশ বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এর কুফল হিসেবে বিশ^ব্যাপী প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেমন আগাম বন্যা, খরা, জলোচ্ছ্বাস, অতিবৃষ্টি, অনাবৃষ্টি, বজ্রপাত, শিলা বৃষ্টি, মৌসুমি ঝড়, সামুদ্রিক ঝড়সহ নানা দুর্যোগ দিন দিন বেড়েই চলেছে। আর এই জলবায়ু পরিবর্তন এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঝুঁকির মধ্যে থাকা দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম।

ড. শাহ কামাল আরও জানান, কৃষি আবহাওয়া তথ্য পদ্ধতি উন্নতকরণ প্রকল্পের মাধ্যমে কৃষকদের সচেতন করতে তাদের কাছে আগাম কৃষি আবহাওয়ার তথ্য পৌঁছাতে চায় সরকার। এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে- আবহাওয়া এবং নদ-নদীর সামগ্রিক অবস্থা সম্পর্কিত উন্নতমানের এবং নির্ভরযোগ্য তথ্য কৃষকের কাছে পৌঁছানো এবং এ সংক্রান্ত তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহের উন্নত পদ্ধতি ব্যবহারে ডিএই’র সক্ষমতা বৃদ্ধি করা। কারণ এ বিষয়ে বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, বিরূপ আবহাওয়ার ক্ষতিকর প্রভাব কৃষকদের জানাতে পারলে প্রতিকূলতা থেকে ফসল রক্ষা করা এবং অনুকূল আবহাওয়াকে কাজে লাগিয়ে উৎপাদন খরচ কমানোর পাশাপাশি কৃষি উৎপাদন বাড়ানো সম্ভব। সে কারণেই বিশ্বব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় কৃষি মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কৃষি আবহাওয়া তথ্য পদ্ধতি উন্নতকরণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। 

এসময় প্রকল্পের কার্যক্রম প্রকল্পটির পরিচালক জানান, এই প্রকল্পের মাধ্যমে নির্ভরযোগ্য কৃষি আবহাওয়া এবং জলবায়ু বিষয়ক ঝুঁকি সংক্রান্ত তথ্য উপাত্ত কৃষকের উপযোগী করে প্রস্তুত করে তা বিভিন্ন সম্প্রসারণ পদ্ধতির মাধ্যমে কৃষকের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়। এটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে বামিস ওয়েব পোর্টাল স্থাপন, ৪৮৭টি উপজেলায় কৃষি আবহাওয়া বিষয়ক কিওস্ক স্থাপন,  ৪ হাজার ৫১টি ইউনিয়ন পরিষদে অটোমেটিক রেইন গেজ এবং কৃষি আবহাওয়া ডিসপ্লে বোর্ড স্থাপন ও এসএএওদের কৃষি আবহাওয়া এবং জলবায়ু বিষয়ক তথ্য প্রেরণের জন্য ইন্টারনেট কানেক্টিভিটিসহ ৬ হাজার ৬৬৪টি ট্যাব সরবরাহ করা হয়েছে।

প্রকল্পের আওতায় তৈরি বামিস একটি ডায়নামিক ওয়েব পোর্টাল - যেখানে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে প্রাপ্ত আবহাওয়া সংক্রান্ত তথ্য উপাত্ত এবং বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড থেকে প্রাপ্ত নদ-নদীর  তথ্য-উপাত্ত সন্নিবেশিত হয়। তারপর সেগুলো যাচাই বাছাই এবং অনুবাদ করে  প্রয়োজনীয় কৃষি আবহাওয়া পরামর্শ সেবা পোর্টালের মাধ্যমে সরবরাহ করা হয়। এই পোর্টাল কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতিষ্ঠানসমূহের সাথে সংযুক্ত। প্রকল্পের আওতায় প্রতি সপ্তাহে একবার জাতীয় পর্যায়ে, দুইবার ৬৪ জেলার জন্য নিয়মিতভাবে এবং জরুরি অবস্থায় প্রয়োজন অনুযায়ী বিশেষ কৃষি আবহাওয়া বুলেটিন তৈরি করা হয় যা বামিস পোর্টালে নিয়মিত আপলোড করা হয় এবং বামিস পোর্টালের মাধ্যমে এই সেবা সবার জন্য উন্মুক্ত।

এছাড়া জরুরি অবস্থায় কৃষি আবহাওয়া সম্পর্কিত বিভিন্ন পরামর্শ প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত ৩০ হাজার কৃষক প্রতিনিধি ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো করা হয়। মুঠোফোনে পাঠানো কৃষি আবহাওয়ার পরামর্শ সম্পর্কিত সেসব ক্ষুদে বার্তা প্রতিকূল আবহাওয়ায় কৃষি ক্ষেত্রে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণে সহায়তা করে। 

বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিদের নিয়ে আয়োজিত এই কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সরেজমিন উইং এর পরিচালক হাবিবুর রহমান চৌধুরী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরিকল্পনা, প্রকল্প বাস্তবায়ন  ও আইসিটি উইং এর পরিচালক দিলীপ কুমার অধিকারী, জাতীয় প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক ও এগ্রিকালচারাল রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি মো: আশরাফ আলী, এসএ টিভির বার্তা প্রধান মাহমুদ আল ফয়সাল এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনের কৃষি বিষয়ক প্রোগ্রামের উপস্থাপক দেওয়ান সিরাজ বক্তব্য রাখেন। 

Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2022 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.