× প্রচ্ছদ জাতীয় সারাদেশ রাজনীতি বিশ্ব খেলা আজকের বিশেষ বাণিজ্য বিনোদন ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

বন্যায় ৬ বছরে ক্ষতি লাখ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৮ জুন ২০২২, ১০:২৬ এএম

সিলেট, সুনামগঞ্জসহ দেশের উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলা বন্যানিমজ্জিত। বলা হচ্ছে এটি দেশের স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যা। উজান থেকে নামা পাহাড়ি ঢল আর অতি ভারি বৃষ্টি এই বন্যার প্রধান কারণ। নদনদী ও হাওরের পানি বেড়ে বন্যার বিস্তৃতি ঘটায় বেশি। আচমকা পানি বেড়ে ডুবে যায় সব। পানিবন্দি হয়ে পড়েন শুধু সিলেট-সুনামগঞ্জের প্রায় ৪০ লাখ মানুষ। পাশাপাশি জামালপুর, নেত্রকোনা, কুড়িগ্রামসহ উত্তরাঞ্চলেও দেখা দেয় বন্যা। সরকারি হিসাবে এরই মধ্যে প্রাণহানি ঘটেছে প্রায় ৮৪ জনের।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) এক জরিপ মতে, বিগত ছয় (২০১৫-২০২০) বছর বন্যায় দেশে বিপুল ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, যার আর্থিক পরিমাণ এক লাখ এক হাজার ৮৮ কোটি টাকা। এই টাকা দিয়ে তিনটির বেশি পদ্মা সেতু নির্মাণ করা যেত।

ওই জরিপের ফলাফল সম্প্রতি ‘বাংলাদেশ ডিজাস্টার রিলেটেড স্ট্যাটিসটিকস (বিডিআরএস) ২০২১: ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ন্যাচারাল ডিজাস্টার পারসপেক্টিভস’ শীর্ষক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

বিবিএস জানায়, বাংলাদেশের ৬৪ জেলার ১১টি প্রধান দুর্যোগের বিপরীতে দুর্যোগপ্রবণ এলাকা থেকে খানা ধরে ধরে ডিজিটাল পদ্ধতিতে দীর্ঘ প্রশ্নপত্রের মাধ্যমে সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে এই জরিপের তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা। জলবায়ু পরিবর্তনের অনুঘটক যেমন, তাপমাত্রা, বৃষ্টিপাত, কার্বন নিঃসরণ, গ্রিন হাউজ গ্যাস প্রভৃতির ওপর ভিত্তি করে জরিপটি পরিচালনা করা হয়। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রাকৃতিক দুর্যোগ বিষয়ক তথ্য-উপাত্তও এতে উঠে আসে।

বিডিআরএস ২০২১ জরিপে ৬৪ জেলার দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় ৭৫ লাখ ১৫ হাজার ৯৭৭টি খানা (পরিবার) এবং তিন কোটি ৪১ লাখ ১২ হাজার ৯১০ ব্যক্তিকে আওতাভুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে বন্যায় আক্রান্ত ৫৪ দশমিক ৬৯ শতাংশ খানা, ঘূর্ণিঝড়ে আক্রান্ত ৩৪ শতাংশ খানা, বজ্রপাত ও বজ্রঝড়ে (কালবৈশাখী ও আশ্বিনী ঝড়সহ) ১৪ দশমিক ২২ শতাংশ, খরায় ৪ দশমিক ৭২ শতাংশ, জলমগ্নতায় ১০ দশমিক ১৬ শতাংশ, শিলাবৃষ্টিতে ১৭ দশমিক ৮৩ শতাংশ, জলোচ্ছ্বাসে ২ দশমিক ২৬ শতাংশ, নদী/উপকূলীয় ভাঙনে ১০ দশমিক ০৪ শতাংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এছাড়া টর্নেডোতে ৫ দশমিক ২৮ শতাংশ, লবণাক্ততায় ৩ দশমিক ২৭ শতাংশ, ভূমিধসে ০ দশমিক ৪০ শতাংশ এবং অন্যান্য দুর্যোগ যেমন, কুয়াশা, শৈত্যপ্রবাহ, পোকামাকড়ের আক্রমণ প্রভৃতিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় ০ দশমিক ০৯ শতাংশ খানা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে নানা ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ আঘাত হানে। এর মধ্যে বন্যাই সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি করে। ২০১৫ সাল থেকে ২০২০ সময়কালে অর্থাৎ ছয় বছরে বাংলাদেশে বন্যা, ঘূর্ণিঝড়সহ যেসব প্রাকৃতিক দুর্যোগ আঘাত হানে, তাতে আর্থিক ক্ষতি হয় এক লাখ ৭৯ হাজার ১৯৮ কোটি টাকার। এর মধ্যে কেবল বন্যায় আর্থিক ক্ষতি এক লাখ এক হাজার ৮৮ কোটি টাকার, যা দুর্যোগজনিত মোট ক্ষতির ৫৬ দশমিক ৪১ শতাংশ। বন্যায় নদীভাঙন, বসতবাড়ি তলিয়ে নেওয়া, ফসলি জমি ভাসিয়ে নেওয়ার পাশাপাশি শিশুদের নানা ধরনের রোগ, বেকারত্ব তৈরি এবং দারিদ্র্যও বাড়ে।

জরিপ প্রতিবেদন অনুসারে, ২০০৯ থেকে ২০১৪ সময়কালে (ছয় বছরে) বন্যায় আর্থিক ক্ষতি নিরূপিত হয়েছিল চার হাজার ২৮০ কোটি টাকা। অর্থাৎ, আগের ছয় বছরের তুলনায় পরের ছয় বছরে বন্যায় আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে ২৪ গুণেরও বেশি।

বিবিএস জানায়, উল্লিখিত ছয় বছরে (২০১৫-২০২০) প্রাকৃতিক দুর্যোগে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে কৃষিখাত, শস্য, প্রাণিসম্পদ, পোল্ট্রি, মৎস্য, বনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্র। সব মিলিয়ে এই খাতে সর্বমোট ক্ষতি ৭১ হাজার ৭৮৩ কোটি টাকা। যা মোট ক্ষতির ৪০ দশমিক ০৬ শতাংশ। বন্যার পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড়ও অনেক ক্ষতি করেছে উল্লিখিত সময়কালে। এই সময়ে ২৫ হাজার ৫৩৮ কোটি টাকার ক্ষতি করেছে ঘূর্ণিঝড়।

Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2022 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.