× প্রচ্ছদ বাংলাদেশ বিশ্ব রাজনীতি খেলা বিনোদন বাণিজ্য লাইফ স্টাইল ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

ঢাবির ৫৩তম সমাবর্তন কাল, ক্যাম্পাসে উৎসব আমেজ

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৮ নভেম্বর ২০২২, ১৪:৩৯ পিএম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ৫৩তম সমাবর্তন আগামীকাল শনিবার (১৯ নভেম্বর)৷ সমাবর্তন সামনে রেখে স্নাতকদের হাস্যোজ্জ্বল পদচারণে মুখর হয়ে উঠেছে গোটা ক্যাম্পাস। কালো রঙের বিশেষ গাউন-টুপি-কস্টিউম পরে ক্যাম্পাস ও হলের বিভিন্ন জায়গায় ছবি তোলা, সহপাঠীদের নিয়ে দল বেঁধে গল্প করা, ঘোরাঘুরিতে ব্যস্ত স্নাতকেরা। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সমাবর্তনে অংশ নিতে নিবন্ধন করেছেন ৩০ হাজার ৩৪৮ জন স্নাতক ও গবেষক। মাঠে ঢুকতে হলে সবাইকে মাস্ক পরতে হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে সমাবর্তনের আনুষ্ঠানিকতার বিস্তারিত তুলে ধরেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বরাবরের মতোই সভাপতিত্ব করবেন রাষ্ট্রপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. আবদুল হামিদ। সমাবর্তন বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন নোবেল বিজয়ী ফরাসি অর্থনীতিবিদ জ্যাঁ তিরোল। সমাবর্তনে তাঁকে সম্মানসূচক ডক্টর অব লজ ডিগ্রি দেওয়া হবে। 

সংবাদ সম্মেলনে উপাচার্য জানান, সমাবর্তন অনুষ্ঠানে ১৩১ জন কৃতী শিক্ষক, গবেষক ও শিক্ষার্থীকে ১৫৩টি স্বর্ণপদক, ৯৭ জনকে পিএইচডি, ২ জনকে ডিবিএ এবং ৩৫ জনকে এমফিল ডিগ্রি দেওয়া হবে। অধিভুক্ত সাত কলেজের নিবন্ধন করা স্নাতকেরা ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে ঢাকা কলেজ ও ইডেন মহিলা কলেজ ভেন্যু থেকে সমাবর্তনে অংশগ্রহণ করবেন। সমাবর্তনে অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণপত্র এবং জাতীয় পরিচয়পত্র বা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক আইডি অথবা পাসপোর্ট সঙ্গে আনতে হবে। 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকেরা খেলার মাঠের সুইমিংপুলসংলগ্ন ফটক দিয়ে সমাবর্তনস্থলে প্রবেশ করবেন। তাদের জন্য সকাল সাড়ে ৯টায় ফটক খোলা হবে এবং তাদের বেলা ১১টার মধ্যে অবশ্যই সমাবর্তনস্থলে আসন গ্রহণ করতে হবে। আমন্ত্রিত অতিথিরা জিমনেসিয়ামসংলগ্ন ফটক দিয়ে সমাবর্তনস্থলে প্রবেশ করবেন। তাদের জন্য সকাল ১০টায় ফটক খোলা হবে। সমাবর্তনস্থলে প্রবেশের জন্য মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক।

আমন্ত্রণপত্র হস্তান্তরযোগ্য নয়। সমাবর্তনস্থলে মুঠোফোন, হাতব্যাগ, ব্রিফকেস, ক্যামেরা, ইলেকট্রনিক ডিভাইস, ছাতা ও পানির বোতল নিয়ে প্রবেশ করা যাবে না।

উপাচার্য বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতকেরা খেলার মাঠের সুইমিংপুলসংলগ্ন ফটক দিয়ে সমাবর্তনস্থলে প্রবেশ করবেন। তাঁদের জন্য সকাল সাড়ে ৯টায় ফটক খোলা হবে এবং তাঁদের বেলা ১১টার মধ্যে অবশ্যই সমাবর্তনস্থলে আসন গ্রহণ করতে হবে। 

অনুষ্ঠানস্থলে নিজ নিজ আসন গ্রহণ করার পর কোনোক্রমেই মঞ্চের আশপাশে ও অন্যান্য স্থানে ঘোরাফেরা করা যাবে না। আমন্ত্রিত অতিথিরা জিমনেসিয়ামসংলগ্ন ফটক দিয়ে সমাবর্তনস্থলে প্রবেশ করবেন। তাদের জন্য সকাল ১০টায় ফটক খোলা হবে এবং তারা সকাল সাড়ে ১১টার মধ্যে অবশ্যই সমাবর্তনস্থলে আসন গ্রহণ করবেন। সমাবর্তনস্থলে প্রবেশের জন্য মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক।

সমাবর্তনের দিন সকাল আটটা থেকে বেলা তিনটা পর্যন্ত টিএসসি ক্রসিং থেকে দোয়েল চত্বর, হাইকোর্ট থেকে দোয়েল চত্বর এবং ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে দোয়েল চত্বর পর্যন্ত রাস্তায় গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রাখতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহযোগিতা চান উপাচার্য। সর্বসাধারণের চলাচলের জন্য ওই দিন বিকল্প রাস্তা ব্যবহারের অনুরোধ জানান তিনি। উপাচার্য বলেন, সমাবর্তনের দিন ভিআইপি এবং আমন্ত্রিত অতিথিদের গাড়ি কাজী মোতাহার হোসেন বিজ্ঞান ভবন (কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসংলগ্ন সায়েন্স এনেক্স ভবন) মাঠে পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকবে। এ ছাড়া অন্যান্য গাড়ি সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের মাঠ, শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের মাঠ, হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলের মাঠ এবং ফুলার রোডে পার্ক করতে হবে। স্নাতকদের চলাচলের সুবিধার্থে ক্যাম্পাসের অন্য রাস্তায় গাড়ি পার্ক না করার জন্য তিনি সবার প্রতি অনুরোধ জানান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য (প্রশাসন) মুহাম্মদ সামাদ, সহ-উপাচার্য (শিক্ষা) এ এস এম মাকসুদ কামাল, কোষাধ্যক্ষ মমতাজ উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

সমাবর্তনের দিন ভিআইপি এবং আমন্ত্রিত অতিথিদের গাড়ি কাজী মোতাহার হোসেন বিজ্ঞান ভবন (কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারসংলগ্ন সায়েন্স এনেক্স ভবন) মাঠে পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকবে। এ ছাড়া অন্যান্য গাড়ি সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের মাঠ, শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের মাঠ, হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলের মাঠ এবং ফুলার রোডে পার্ক করতে হবে

সর্বশেষ ২০১৯ সালের ৯ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫২তম সমাবর্তন হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সভাপতিত্বে এতে সমাবর্তন বক্তা ছিলেন জাপানের টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ের কসমিক রে রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক তাকাকি কাজিতা। ওই সমাবর্তনে ৭৯ জন কৃতী শিক্ষক-গবেষক ও শিক্ষার্থীকে ৯৮টি স্বর্ণপদক, ৫৭ জনকে পিএইচডি, ৬ জনকে ডিবিএ এবং ১৪ জনকে এমফিল ডিগ্রি দেওয়া হয়।

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ২০২০ সালের ৫ সেপ্টেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ সমাবর্তন হওয়ার কথা ছিল। সেখানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সম্মানসূচক মরণোত্তর ‘ডক্টর অব লজ’ ডিগ্রি দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে তখন সেই সমাবর্তন আর হয়নি।

সমাবর্তনের কস্টিউম নিয়ে বিতর্ক

সমাবর্তনে অংশ নেওয়ার জন্য নিবন্ধন করা স্নাতক ও গবেষকদের মধ্যে ইতিমধ্যে কস্টিউম (বিশেষ গাউন, টাই, টুপি, আমন্ত্রণপত্র ও স্যুভেনির) বিতরণ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভবনে তৈরি বুথ থেকে এসব সরবরাহ করা হয়েছে। আগের বছরগুলোতে স্নাতকদের কাপড়ের ব্যাগে কস্টিউম সরবরাহ করা হলেও এবার কিছু কিছু বুথে ব্যবহার করা হয়েছে দেশে নিষিদ্ধ পলিথিনের ব্যাগ। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনায় মুখর হয়েছেন শিক্ষার্থীদের অনেকে।

শুধু তা-ই নয়, সমালোচনা হচ্ছে কর্তৃপক্ষের ভুল ক্রমবাচক সংখ্যা লেখা নিয়েও। সমাবর্তন উপলক্ষে দেওয়া টাইয়ে ‘53rd Convocation’ লিখতে গিয়ে ভুল করে ‘53th Convocation’ লেখা হয়েছে।

বিষয়গুলো ইতোমধ্যে উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামানের নজরেও এসেছে। সমাবর্তনের ঢাকা কলেজ ভেন্যু পরিদর্শনে গিয়ে উপাচার্য বলেন, ‘সমাবর্তনের গাউন সব সময় স্বতন্ত্রভাবেই দেওয়া হয়। সে ক্ষেত্রে টিস্যু ব্যাগ ব্যবহার করা হয়। তবে এ বছর দু–একটি পয়েন্টে পলিব্যাগ ব্যবহার করা হয়েছে। বিষয়টি কোনোভাবেই কাম্য নয়। আজ সকালেই আমি সব নমুনা সংগ্রহ করেছি। পলিব্যাগ ব্যবহার বন্ধ করা হয়েছে। 

কিন্তু সব কটি বুথে পলিব্যাগ ব্যবহার করা হয়েছে- এমন কিছু বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানো হয়েছে। সবগুলো বুথে নয়, বরং এক বা দুটি বুথে এমনটা হয়ে থাকতে পারে। তবে বিষয়টি আমলে নিয়ে সঙ্গে সঙ্গেই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’ 

আর টাইয়ের ভুলের বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করে উপাচার্য বলেন, এটা অনিচ্ছাকৃত ভুল।

Sangbad Sarabela

সম্পাদক: আবদুল মজিদ

প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । sangbadsarabela26@gmail.com, বিজ্ঞাপন: 01894-944204

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2022 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.