× প্রচ্ছদ বাংলাদেশ বিশ্ব রাজনীতি খেলা বিনোদন বাণিজ্য লাইফ স্টাইল ভিডিও সকল বিভাগ
ছবি ভিডিও লাইভ লেখক আর্কাইভ

রঙিন ফুলকপি চাষে কৃষকের চমক

নালিতাবাড়ী (শেরপুর) সংবাদদাতা

২২ জানুয়ারি ২০২৪, ১২:১৫ পিএম

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় পাহাড়ি অঞ্চলে  শীত যেমন বেশি, তেমনি অনেক ধরনের শাকসবজির দেখাও মেলে এই শীতকালে। মুলা, গাজর, শিম, টমেটো, ফুলকপি, বাঁধাকপিসহ বিভিন্ন ধরনের শাকসবজির চাষ হয় এ উপজেলায়। 

তবে এবার দেখা মিললো একটু ব্যতিক্রমধর্মী রঙিন ফুলকপির চাষ। কোনোটির রঙ হলুদ আবার কোনোটির রঙ বেগুনি। কোনো রকম কীটনাশক ছাড়াই চাষ হচ্ছে এসব রঙিন ফুলকপি। 

একজন প্রান্তিক কৃষক ৩৩ শতাংশ জমিতে রঙিন ফুলকপি  চাষ করেছেন নালিতাবাড়ী উপজেলার বাঘবের ইউনিয়নের শিমূলতলা এলাকায়।প্রথমবারের মতো রঙিন ফুলকপি  চাষে সফলতা পাওয়ায় আগামীতে আরও বড় পরিসরে এই রঙিন ফুলকপি চাষ করবেন বলে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তিনি।

কৃষক সিরাজের এই রঙিন ফুলকপির সৌন্দর্য উপভোগ করতে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত অনেকেই আসেন তার জমিতে।

কেউ কেউ কিনে নিয়ে যান। আবার অনেকেই এই ফুলকপি চাষে আগ্রহ পোষণ করেন এবং  পরামর্শ নেন। অনেকেই রঙিন ফুলকপির সঙ্গে ছবি তোলাসহ ভিডিও ধারণও করছেন রীতিমতো। এমন রঙিন ফুলকপির সাফল্যে খুশি স্থানীয় কৃষি অফিস।

এ নিয়ে সিরাজ  বলেন, সাধারণ হল্যান্ড জাতীয় সাদা ফুলকপি চাষ করে লোকসান হয়েছে।

তাই প্রথম দিকে আমি সাধারণ বাঁধাকপি ও ফুলকপিই চাষ করতে চেয়েছিলাম। পরে মনে হলো একটু চাষ‌ করেই দেখি রঙিন কপি কেমন হয়। পরে ৩৩ শতাংশ জমিতে চাষ করি। যেখানে হলুদ রঙের ফুলকপি ১২শ পিস, এর সাথে অল্প বাঁধাকপিও রোপণ করি। 

কোনো প্রকার কীটনাশক ব্যবহার ছাড়াই এগুলো চাষ করেছেন বলে জানান তিনি।  

প্রতিটি রঙিন ফুলকপির ওজন এক থেকে দুই কেজি পর্যন্ত হয়েছে। বাজারে পাইকারি ৬০-৭০ টাকা পিস হিসেবে ফুলকপি বিক্রি করেছি।  আমার ৩৩ শতাংশ জমির সবগুলো কপি বিক্রি করতে পারলে ৭০ থেকে৮০ হাজার টাকার মতো বিক্রি হবে বলে আমি আশাবাদী।

এদিকে রঙিন কপি নিয়ে উপজেলা কৃষি অফিসের আয়োজনে মাঠ দিবস ২০২৪ এ উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার আনোয়ার হোসেন বক্তব্যে বলেন, কৃষিকে এখন আধুনিক পেশা হিসেবে আপনারা নিতে পারেন। আমাদের চিন্তাধারা পরিবর্তন করতে হবে।চাকুরির উপর নির্ভরশীল না হয়ে খুব সহজেই বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে কৃষির মাধ্যমে  অর্থনৈতিকভাবে লাভবান  হওয়া যায়। 

এই কপি চাষে সফলতায় ওই এলাকার অনেক কৃষক আগামীতে রঙিন ফুলকপি ও বাঁধাকপি চাষ করবেন বলে জানিয়েছেন।

এ নিয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ওয়াদুদ সংবাদ সারাবেলাকে বলেন, আকর্ষণীয় সবজিগুলোর মধ্যে রঙিন কপি নিঃসন্দেহে একটি আকর্ষণীয় সবজি। রঙিন কপি চাষে বর্তমানে কৃষকের আগ্রহ বাড়ছে। সেইসাথে মানবদেহের জন্য সাদা রঙের ফুলকপির চেয়ে এই রঙিন ফুলকপি অনেক পুষ্টিকর।

 অন্যদিকে কৃষক সিরাজের রঙিন ফুলকপি চাষের প্রচার প্রচারণার ফলে ভোক্তা ও বিক্রেতাদের মাঝে ক্রয়-বিক্রয়ে আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে। কীটনাশক ছাড়াই চাষাবাদ করা যাচ্ছে এই রঙিন কপি। এতে কৃষকেরা লাভবান হবেন। আশা করি আগামীতে এই সবজি চাষের পরিমাণও বাড়বে।

Sangbad Sarabela

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী আবু জাফর

যোগাযোগ: । 01894-944220 । [email protected], বিজ্ঞাপন: 01894-944204

ঠিকানা: বার্তা ও বাণিজ্যিক যোগাযোগ : বাড়ি নম্বর-২৩৪, খাইরুন্নেসা ম্যানশন, কাঁটাবন, নিউ এলিফ্যান্ট রোড, ঢাকা-১২০৫।

আমাদের সঙ্গে থাকুন

© 2024 Sangbad Sarabela All Rights Reserved.